বৃহস্পতিবার, ১৩ Jun ২০২৪, ১০:০৪ অপরাহ্ন


সিলেটে সড়ক দুর্ঘটনার ছবি দিয়ে ফেসবুকে গুজব

সিলেটে সড়ক দুর্ঘটনার ছবি দিয়ে ফেসবুকে গুজব

ফেসবুকে গুজব

শেয়ার বোতাম এখানে

দক্ষিণ সুরমা প্রতিনিধি : সিলেটের দক্ষিণ সুরমায় এক বছর আগে ঘটে যাওয়া এক ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনার ছবি দিয়ে শনিবার (৮ জুন) ভার্চুয়াল যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে গুজব ছড়ানো হচ্ছে। অনেকেই এটি আজকের (শনিবার) দুর্ঘটনা উল্লেখ করে পোস্ট দিচ্ছেন। এতে চরম বিভ্রান্ত হচ্ছেন সিলেটের মানুষ। এ বিষয়ে বেশি বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছেন সাংবাদিক পরিচয়ধারীরা।

এছাড়া অনেকে গত বছরের বিভিন্ন পত্রিকা ও পোর্টালে প্রকাশিত এ দুর্ঘটনার নিউজ শেয়ার দিচ্ছেন। তবে তারা ঘটনাটি ‘এক বছর আগের’ এ কথা উল্লেখ করছেন না। ফলে জনমনে সময় সময় বাড়ছে বিভ্রান্তি ও উদ্বেগ।

সচেতন মহল বলছে- গুজব যারা ছড়াচ্ছে তাদের আইনের আওতায় নিয়ে আসা হলে এর পুনরাবৃত্তি ঘটবে না।

এ বিষয়ে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের (এসএমপি) মিডিয়া অফিসার অতিরিক্ত উপ-কমিশনার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বলেন- সিলেটে গুজব প্রতিরোধে পুলিশের বিশেষ টিম তৎপর রয়েছে। এক বছর আগের নাজিরবাজারের দুর্ঘটনা নিয়ে গুজব ছড়ানোর বিষয়ে খোঁজ নিচ্ছি।

উল্লেখ্য, গত বছরের ৭ জুন ভোরে সিলেটের দক্ষিণ সুরমার নাজিরবাজারে বালুবাহী ট্রাক ও শ্রমিক বহনকারী পিকআপের সংঘর্ষে ১৫ শ্রমিক নিহত হন। নিহতদের মধ্যে নারীও ছিলেন।

ওই দিন ভোরে সিলেট থেকে ছেড়ে যাওয়া একটি পিকআপে প্রায় ৩০ জন নির্মাণশ্রমিক জেলার ওসমানীনগর উপজেলার গোয়ালাবাজারে যাচ্ছিলেন। ভোর সাড়ে ৫টার দিকে দক্ষিণ সুরমার নাজিরবাজার এলাকার কুতুবপুর নামক স্থানে পৌঁছলে মুনশীগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা সিলেটগামী মালবোঝাই ট্রাকের সঙ্গে শ্রমিক বহনকারী পিকআপের সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান ১১ জন। পরে হাসপাতালে নেওয়ার পর মারা যান আরও ৪ জন।

দুর্ঘটনায় নিহতরা ছিলেন- সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার ভাটিপাড়া গ্রামের মৃত সজিব আলীর ছেলে রশিদ আলী (২৫), শান্তিগঞ্জ উপজেলার মুরাদপুর গ্রামের মৃত হারুন মিয়ার ছেলে দুলাম মিয়া (২৬), একই উপজেলার বাবনগাঁ গ্রামের মৃত ওয়াহাব আলীর ছেলে শাহিন মিয়া (৪০), দিরাই উপজেলার আলীনগর গ্রামের মৃত শিশু মিয়ার ছেলে হারিস মিয়া (৬৫), হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার হলদিউড়া গ্রামের আব্দুর রহিমের স্ত্রী আমিনা বেগম (৪৫), সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার ভাটিপাড়া গ্রামের মৃত মফিজ মিয়ার ছেলে সায়েদ নূর (৫০), শান্তিগঞ্জ উপজেলার তলেরতন গ্রামের মৃত আওলাদ উল্লার ছেলে আওলাদ হোসেন (৬০), দিরাই উপজেলার পাথারিয়া গ্রামের মৃত ছলিম উদ্দিনের ছেলে একলিম মিয়া (৫৫), গচিয়া গ্রামের বারিক উল্লার ছেলে সিজিল মিয়া (৫৫), ভাটিপাড়া গ্রামের সিরাজ মিয়ার ছেলে সৌরভ মিয়া (২৭), নেত্রকোনার ভারহাট্টা উপজেলার দশদার গ্রামের ইসলাম উদ্দিনের ছেলে আওলাদ মিয়া (৩০), সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার ভাটিপাড়া গ্রামের শমসের নুরের মেয়ে মেহের (২৪), দিরাই উপজেলার মধুপুর গ্রামের সোনা মিয়ার ছেলে দুদু মিয়া (৪০), একই গ্রামের শাহজাহানের ছেলে বাদশা (২২) ও দিরাই উপজেলার ভাটিপাড়া গ্রামের মায়েদ নুরের ছেলে বাদশা (২২)।


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin