মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ০৮:৪৫ পূর্বাহ্ন



সি-আর দত্তের মৃত্যুতে জালালাবাদ এসোসিয়েশনের ইউকের শোক

সি-আর দত্তের মৃত্যুতে জালালাবাদ এসোসিয়েশনের ইউকের শোক


শুভ প্রতিদিন ডেস্ক:

বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে চার নম্বর সেক্টরের কমান্ডার, বাংলাদেশের সর্বশ্রেষ্ঠ সন্তানদের একজন, সিলেটের কৃতি সন্তান মেজর জেনারেল (অব.) চিত্ত রঞ্জন দত্ত (সি. আর. দত্ত) বীর উত্তম আর নেই।

সোমবার স্থানীয় সময় রাত ১১ টা ১৫ মিনিটে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

১৯২৭ সালের ১ জানুয়ারি আসামের শিলংয়ে জন্ম নেয়া সি আর দত্তের পৈতৃক বাড়ি হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার মিরাশি গ্রামে। তার বাবার নাম উপেন্দ্র চন্দ্র দত্ত এবং মায়ের নাম লাবণ্য প্রভা দত্ত। তাহার প্রাথমিক শিক্ষা শুরু হয় আসামের শিলং শহরের লাভান গভর্নমেন্ট হাইস্কুলে।

পরবর্তীতে হবিগঞ্জ সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৯৪৪ সালে মাধ্যমিক পরীক্ষা পাস করেন। তারপর ভর্তি হন কলকাতার আশুতোশ কলেজে। পরবর্তীতে খুলনার দৌলতপুর কলেজে থেকে ইন্টারমেডিয়েট ও বিএসসি পাস করেছিলেন।

চিত্ত রঞ্জন দত্ত ১৯৫১ সালে পাকিস্তান সেনাবাহিনীতে যোগ দেন। কিছুদিন পর ‘সেকেন্ড লেফটেনেন্ট’ পদে কমিশন পান। ১৯৬৫ সালে সৈনিক জীবনে প্রথম যুদ্ধে লড়েন তিনি। ১৯৬৫ সালের পাক-ভারত যুদ্ধে পাকিস্তানের হয়ে আসালং এ একটা কোম্পানির কমান্ডার হিসেবে যুদ্ধ করেন তিনি। এই যুদ্ধে বীরত্বপূর্ণ অবদানের জন্য পাকিস্তান সরকার তাকে পুরস্কৃত করে।

মুক্তিযুদ্ধে তাঁর ভূমিকা অনেক। ১০ এপ্রিল মুজিবনগর সরকার গঠিত হওয়ার পর তাজউদ্দীন আহমেদকে প্রধানমন্ত্রী মনোনীত করা হয় এবং মুক্তিযুদ্ধের প্রধান সেনাপতি হিসেব দায়িত্ব দেয়া হয় এম.এ.জি ওসমানীকে। তিনি বাংলাদশেকে মোট ১১টি সেক্টরে ভাগ করে নেন। সিলেট জেলার পূর্বাঞ্চল এবং খোয়াই শায়স্তাগঞ্জ রেল লাইন বাদে পূর্ব ও উত্তর দিকে সিলেট ডাউকি সড়ক পর্যন্ত এলাকা নিয়ে ৪নং সেক্টর গঠন করা হয় এবং এই সেক্টরের কমান্ডার নিযুক্ত হন চিত্ত রঞ্জন দত্ত। সেক্টর কমান্ডার হিসেবে দায়িত্ব পাওয়ার পর সিলেটের রশীদপুরে প্রথমে ক্যাম্প বানান তিনি।পরবর্তী সময়ে তিনি যুদ্ধের আক্রমণের সুবিধার্থে রশীদপুর ছেড়ে মৌলভীবাজারে ক্যাম্প স্থাপন করেন।

মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী জীবনে চিত্ত রঞ্জন দত্ত ছিলেন বাংলাদেশ রাইফেলসের (বর্তমানে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ) প্রথম মহাপরিচালক। এছাড়া ১৯৭১-এর পর থেকে ১৯৮৪ সাল পর্যন্ত তিনি অনেকগুলো গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন।

এদিকে মুক্তিযোদ্ধা সি-আর দত্তের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করছেন জালালাবাদ এসোসিয়েশনের প্রধান উপদেষ্টা আহমেদ উস সামাদ চৌধুরী জেপি, জালালাবাদ এসোসিয়েশন ইউকে’র প্রেসিডেন্ট মহিবুর রহমান মুহিব, জালালাবাদ এসোসিয়েশন ইউকে’র সহ সভাপতি এম এ মুনিম, মাহবুব রহমান, মোজাহিদ আলী চৌধুরী, আবুল কালাম আজাদ ছোটন, সহ সভাপতি কাউন্সিলার রিতা বেগম, সেক্রেটারি মোহাম্মদ আমিনুল হক জিল্লু,ট্রেজারার এনাম উল হক চৌধুরী, প্রেস সেক্রেটারি এম এ এম জাহেদী ক্যারল সহ জালালাবাদ ত্রসোসিয়েশন ইউকের উপদেষ্টা ও কার্যকরী পরিষদের সকল সদস্যবৃন্দ।

এক শোক বার্তায় তাঁরা শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। এছাড়াও জাতির শ্রেষ্ঠ এই সন্তানের প্রতু শ্রদ্ধা ও পরলৌকিক আত্মার শান্তি কামনা করেন।


সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin