বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ০১:২১ অপরাহ্ন


২৪ ঘণ্টায় ৯ জনের প্রাণ নিল বজ্রপাত

২৪ ঘণ্টায় ৯ জনের প্রাণ নিল বজ্রপাত


শেয়ার বোতাম এখানে

শুভ প্রতিদিন ডেস্ক:

করোনায় দেড় মাসে যা করতে পারেনি। বজ্রপাতে তা একদিনেই করল। আসমানী এ মোসিবত এক দিনে ৬ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে। এ নিয়ে গত ২ দিনে ৯ জনের প্রাণ নিল বজ্রপাত। এছাড়া গত ২৬ মার্চ বজ্রপাতে ২ জনের প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে।

আজ শনিবার (১৮ এপ্রিল) সিলেট সদর উপজেলায়
বজ্রপাতে বাবা-ছেলে ২ জনই নিহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন, জালালাবাদ ইউনিয়নের পুরান কালারুকা গ্রামের মো. সমসর আলী (৬০) ও তার ছেলে সাইফুল ইসলাম (১২) দু’জন আজ দুপুরে বজ্রপাতে নিহত হন তারা।

সকালে সুনামগঞ্জ জেলার শাল্লা, দিরাই ও জগন্নাথপুর ও দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলায় বজ্রপাতে একে একে ৪ জনের প্রাণ নিয়েছে।

নিহতরা হলেন- শাল্লা উপজেলার নারায়ণপুর গ্রামের সুরেন্দ্র সরকারের ছেলে শংকর সরকার (২৬), জগন্নাথপুর উপজেলার বাউধরণ গ্রামে শিপন মিয়া (৩২) ও দিরাই উপজেলায় হবিগঞ্জ জেলার আজমিরীগঞ্জ উপজেলার মফিজ উল্লার ছেলে তাপস মিয়া (৩৫) ও দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার পাথারিয়া ইউনিয়নের উত্তর গাজীনগর গ্রামের আমিনুল ইসলামের ছেলে ফরিদ মিয়া (৩৫)।

এছাড়া হবিগঞ্জের মাধবপুরে গরুর জন্য ঘাস কাটতে হাওরে গিয়ে বজ্রপাতে সিরাজ উদ্দিন(৫৫) নামে এক কৃষক মারা গেছেন। গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে উপজেলার শাহজাহান ইউনিয়নের উত্তর সুরমা গ্রামের পশ্চিমে হাওরে এ ঘটনা ঘটে। নিহত কৃষক সিরাজ উদ্দিন উত্তর সুরমা গ্রামের মৃত সাজ উদ্দিনের ছেলে।

গোয়াইনঘাটে বজ্রপাতে এক কৃষক নিহত হয়েছেন। গতকাল শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এঘটনা ঘটে। নিহতের নাম শাহেদ আলী (৬২)। তিনি উপজেলার রাধানগরস্থ বড়বন্ধ গ্রামের বাসিন্ধা। শাহেদ আহমদ প্রতিদিনের ন্যায় শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বাড়ির পাশে গরু চরাতে যান। এসময় তার উপর বজ্রপাত হলে তিনি ঘটনাস্থলে মারাযান।

একই দিন বিকালে গোয়াইনঘাটে বজ্রপাতে আরেকজন নিহত হয়েছেন। নিহত ব্যক্তির নাম শেরগুল (৩৮)। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত সোমবার বিকেলে উপজেলার পূর্ণানগর হাওরে এ ঘটনা ঘটে। জানা যায়, আরব আলীর ছেলে শেরগুল স্থানীয় গাছউরা হাওরে মাছ ধরার গর্ত তৈরিকালে হঠাৎ করে ঝড়ো বৃষ্টি ও বজ্রপাত শুরু হয়। এ সময় বজ্রপাতে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান।

গত ২৬ মার্চ সিলেটের গোয়াইনঘাটে বজ্রপাতে ২ জনের প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে। আহত হন আরও ২জন। বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) দিবাগত রাত ৩টায় উপজেলার ১নং রুস্তমপুর ইউনিয়নের আনফরের ভাঙ্গা নামক স্থানে এই মর্মান্তিক প্রাণহানির ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন স্থানীয় বীরমঙ্গল নোয়া পাড়া গ্রামের মৃত আব্দুল করিমের ছেলে নুর মিয়া(৩৫) ও একই গ্রামের ইসরাইল আলীর ছেলে ময়না মিয়া(৩০)। অপরদিকে আহতরা হলেন একই গ্রামের আব্দুস সালাম ও আব্দুল গফুরের ছেলে আমির উদ্দিন(২৫) ও জামাল উদ্দিন। নিহত ও আহতরা সবাই মৌসুমী ক্ষুদ্রপাথর ব্যবসায়ী।


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin