বৃহস্পতিবার, ১৭ Jun ২০২১, ১২:০৫ পূর্বাহ্ন

সিলেটে ছাত্রদলে উত্তাপ বিদ্রোহ প্রত্যাখ্যান

সিলেটে ছাত্রদলে উত্তাপ বিদ্রোহ প্রত্যাখ্যান


শেয়ার বোতাম এখানে
  • 15
    Shares

শুভ প্রতিদিন ডেস্ক:

সিলেটে ছাত্রদলের কমিটি থেকে বাদপড়া নেতাদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। সংবাদ সম্মেলন ও বিক্ষোভ করে তারা কমিটি বাতিলের দাবি জানিয়েছেন। কোনো কোনো এলাকায় বিদ্রোহীরা কমিটি প্রত্যাখ্যান করে ঝাড়ু মিছিল পর্যন্ত করেছেন।

সম্প্রতি ছাত্রদলের উপজেলা, পৌর ও কলেজ শাখার ৩৩টি কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। এ নিয়ে ছাত্রদলে দ্রোহের আগুন জ্বলছে।

তৃণমূল পর্যায়ে ছাত্রদলকে শক্তিশালী ও সুসংগঠিত করতে সম্প্রতি ১৩টি উপজেলা, কলেজ শাখা ১৫টি ও পাঁচটি পৌর ছাত্রদলের কমিটি ঘোষণা হয়। কমিটি ঘোষণার পর থেকে তৃণমূল নেতাকর্মীদের মাঝে চাপা ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে।

এ নিয়ে জেলা ছাত্রদল নেতারা বেকায়দায় পড়েছেন। নিজেদের ঘর সামলাতে হিমশিম খাচ্ছেন। ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় নেতারা বলছেন, বড় সংগঠনের মধ্যে নেতৃত্বের প্রতিযোগিতা থাকাটা স্বাভাবিক। আহ্বায়ক কমিটি করা হয়েছে। আহ্বায়ক পদ একটি থাকায় অনেক যোগ্য নেতা বাদ পড়েছেন। তবে পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে অবশ্যই তাদের মূল্যায়ন করা হবে।

ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন বলেন, ত্যাগী ও মেধাবীরা কমিটি থেকে বাদ পড়লে অবশ্যই তাদের মূল্যায়ন করা হবে। অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, কমিটি ঘোষণার পর থেকে এখনও অভিযোগ পাইনি।

অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। যারা সংগঠনের গঠনতন্ত্রবিরোধী কর্মকাণ্ডে জড়িত তাদের কোনোভাবেই ছাড় দেয়া হবে না বলে তিনি কঠোর বার্তা দেন। কেন্দ্রের নির্দেশনা অনুযায়ী ৯ সেপ্টেম্বর সিলেট জেলা ছাত্রদল ৩৩টি কমিটি ঘোষণা করে।

কমিটি ঘোষণার দু’দিন পর সিলেট সদর উপজেলা ছাত্রদলের নতুন কমিটি বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেন পদবঞ্চিতরা। নবগঠিত কমিটিকে পকেট কমিটি আখ্যা দিয়ে বাতিলেরও দাবি জানান।

কমিটির তালিকা প্রকাশ হওয়ার পর থেকে বিভিন্ন উপজেলায় বিক্ষোভে ফেটে পড়েন পদবঞ্চিতরা। কমিটি প্রত্যাখ্যান করে অনেক এলাকায় ঝাড়ু মিছিলও হয়েছে। গোলাপগঞ্জ উপজেলা পৌর ও কলেজ শাখার নতুন কমিটি প্রত্যাখ্যান করে সংবাদ সম্মেলন করেছেন পদবঞ্চিত নেতারা।

বৃহস্পতিবার বিকালে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়, নতুন কমিটিতে ত্যাগী নেতাদের মূল্যায়ন না করে অর্থের বিনিময়ে ব্যক্তিস্বার্থের পকেট কমিটি করা হয়েছে।

আন্দোলন-সংগ্রামে যারা রাজপথে থেকেছেন, কারা নির্যাতিত হয়েছেন, রাজনৈতিক একাধিক মামলার আসামি হয়েছেন-এমন নেতাকর্মীদের যথাযথ পদে মূল্যায়ন করা হয়নি। কমিটিতে অছাত্র, বিবাহিতরা রয়েছেন। অনেকে প্রবাসে থেকেও গুরুত্বপূর্ণ পদ পেয়েছেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ছাত্রদল নেতা ফখরুল ইসলাম শাকিল, কামিল তালুকদার, সুবেদ আহমদ, তোফায়েল আহমদ সুমেল, সুয়েদ আহমদ, এমরান আহমদ, নাদির আহমদ, নিশাত মোস্তাক ইনান ও রাসেল আহমদ।

জকিগঞ্জ ও কানাইঘাট উপজেলার কমিটি থেকে বাদপড়ারা ঘোষিত কমিটির বিরুদ্ধে ঝাড়ু মিছিল করেন। তাদের অভিযোগ, দলের নির্যাতিত ও মেধাবীদের বাদ দিয়ে কমিটি করা হয়েছে। বিতর্কিত ব্যক্তিদের দিয়ে কমিটি ঘোষণা করে ছাত্রদলকে বিপদের মুখে ঠেলে দেয়া হয়েছে।

সূত্র জানায়, সিলেটে ছাত্রদলের কর্মকাণ্ড ঝিমিয়ে পড়েছে। কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচি দায়সারাভাবে পালন ছাড়া তেমন কোনো সাংগঠনিক তৎপরতা দেখা যায়নি। তবে বিভিন্ন উপজেলা ও পৌর কমিটি ঘোষণার পর মাঠে দেখা যাচ্ছে নেতাকর্মীদের।

সিলেট বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় সহসভাপতি ওমর ফারুক কাওছার বলেন, সারা দেশে ছাত্রদলকে পুনর্গঠন করা হচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় সিলেটে বিভিন্ন ইউনিটের ৩৩টি নতুন কমিটি দেয়া হয়েছে। মান-অভিমান, ভেদাভেদ ভুলে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।

এ প্রসঙ্গে সিলেট জেলা ছাত্রদল সভাপতি আলতাফ হোসেন সুমন বলেন, বড় সংগঠনে মেধার প্রতিযোগিতা হবেই। ত্যাগী যারা বাদ পড়েছেন তাদের কথা বিবেচনার জন্য কেন্দ্রে সুপারিশ পাঠানো হবে।

সৌজন্যে-যুগান্তর


শেয়ার বোতাম এখানে
  • 15
    Shares

সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin