রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৫৯ অপরাহ্ন


কানাইঘাটে বন বিভাগের টিলা কেটে অবৈধ ভাবে পাথর তুলে বিক্রি করছে একটি চক্র

কানাইঘাটে বন বিভাগের টিলা কেটে অবৈধ ভাবে পাথর তুলে বিক্রি করছে একটি চক্র


শেয়ার বোতাম এখানে

কানাইঘাট প্রতিনিধি :

কানাইঘাট উপজেলার লক্ষিপ্রসাদ পূর্ব ইউপির উজান বারাপৈত পশ্চিম মৌজার সেগুন বাগান সংলগ্ন ডেয়াটিলার পূর্ব ও দক্ষিণ পাশ্বের কবরস্থান সংলগ্ন টিলার পাশ্ব কেটে স্থানীয় একটি চক্র অবৈধ ভাবে পাথর উত্তোলন করে বিক্রি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

অভিযোগে জানা যায়, ডেয়াটিলার বন বিভাগের জায়গা হইতে ডেয়াটিলা গ্রামের মৃত রাশিদ আলীর পুত্র হোসন আহমদের নেতৃত্বে ডেয়াটিলা গ্রামের কিছু লোকজন গত দেড় মাস থেকে অবৈধ ভাবে টিলা কেটে পাথর উত্তোলন করে বিক্রি করছে। এতে পাহাড়-টিলা কেটে পাথর উত্তোলনের কারণে দিন দিন ডেয়াটিলা গ্রামের কবরস্থানের জায়গাও বিলীন হওয়ার উপক্রম হয়েছে।

ডেয়াটিলা গ্রামের বাসিন্দা বীর মুক্তিযোদ্ধা নুর হোসেন বলেন, গত দেড় মাস থেকে ডেয়াটিলা গ্রামের হোসন আহমদ, আলী হোসেন সহ ১৫/২০ জন লোক অবৈধ ভাবে পাহাড় টিলা কেটে গভীর গর্ত করে পাথর উত্তোলন করে বিক্রি করছে। তিনি বলেন, সরকারী বন বিভাগের জায়গা থেকে পাথর উত্তোলন করার কারণে ডেয়াটিলা গ্রামের মারাত্মক ক্ষতি হচ্ছে।

ডেয়াটিলা গ্রামের বাসিন্দা হোসন আহমদ, আলী হোসেন বলেন, আমরা বন বিভাগের জায়গা হতে এখন পাথর উত্তোলন করছিনা। তারা বলেন, মাস দেড়েক পূর্বে গ্রামের অন্যান্য লোকজনের সঙ্গে কিছু পাথর উত্তোলন করেছিলাম পরবর্তীতে বন বিভাগের লোকজন এসে বাধা প্রদান করায় আমরা পাথর উত্তোলন বন্ধ করে দিয়েছি।

ডেয়াটিলা সেগুন বাগান বনায়নের সভাপতি দেলোয়ার খাঁ বলেন, গত কয়েকদিন থেকে ডেয়াটিলা গ্রামের কিছু লোকজন বন বিভাগের পাহাড়-টিলা কেটে গর্ত করে পাথর উত্তোলন করেছিলো। এতে উত্তোলিত পাথর গুলো বন প্রহরী আক্তার হোসেন ও হাসান আহমদ সরেজমিনে এসে জব্দ করে আমার জিম্মায় রেখে গেছেন।

এবিষয়ে আলাপকালে কানাইঘাট ভিটের বন প্রহরী আক্তার হোসেন বলেন, ডেয়াটিলা গ্রামের পাহাড়-টিলা কেটে গর্ত করে একটি চক্র অবৈধ ভাবে পাথর উত্তোলন করেছিলো। এতে আমরা খবর সরেজমিনে উপস্থিত হয়ে পাথর গুলো জব্দ করে ডেয়াটিলা সেগুন বাগান বনায়নের সভাপতি দেলোয়ার খাঁর জিম্মায় রেখেছি। তিনি বলেন, বর্তমানে পাথর উত্তোলন বন্দ রয়েছে।


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin